চুয়াডাঙ্গা ১১:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ চুয়াডাঙ্গায় আন্ত‌জেলা অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় ৬ সদস্য  আটক; চেতনা নাশক ঔষধ উদ্ধার দামুড়হুদার ডুগডুগি বাজারে বিট পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার ফয়জুর রহমান-অপরাধ দমনে পুলিশ কে তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন স্ত্রী‌কে সম্ভ্রমহা‌নি করার অপরা‌ধে ক‌বিরাজ‌কে জবাই ক‌রে হত্যা দামুড়হুদায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমপি টগর-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় জনগণের কথা চিন্তা করে দামুড়হুদায় মাশরুম চাষ সম্প্রসারণে মাঠ দিবসে সাবেক মহাপরিচালক ড. হামিদুর রহমান -চুয়াডাঙ্গার মাটি কৃষির ঘাটি দামুড়হুদায় জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভা দামুড়হুদার আটকবর মোড়ে পূর্ববিরোধের জেরে ২জনকে কুপিয়ে, মারপিটে জখম করার অভিযোগ  দামুড়হুদার দুটি রাস্তার উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন কালে এমপি টগর -আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়নমূখী সরকার দামুড়হুদায় বোরো ধান সংগ্রহের লটারী অনুষ্ঠিত 

চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

চুয়াডাঙ্গায় স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে ওবাইদুল ইসলাম তুহিন (৩৫) নামে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

রোববার (২৫ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তুহিন জেলার জীবননগর উপজেলার শাহপুর গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদ মন্ডলের ছেলে ও চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক।

 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনের কাছে প্রাইভেট পড়তো একই স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। প্রতিদিনের মতো রোববার সকাল পৌনে ১০টায় ওই ছাত্রী প্রাইভেট পড়তে যায় সানফ্লাওয়ার স্কুলে।

 

সেখানে প্রাইভেট পড়ার এক পর্যায়ে অন্য শিক্ষার্থীদের ছুটি দিলেও ওই ছাত্রীকে আরও অংক করতে বলেন শিক্ষক তুহিন। এক পর্যায়ে খাতা দেখার সময় ওই ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন শিক্ষক।

 

এ সময় মেয়েটি কান্নাকাটি করতে থাকে। আবারও তাকে ধরতে চাইলে সে দৌড়ে পালানোর সময় তার মামা দেখে ফেলেন। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা-মা চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনকে গ্রেফতার করে।

 

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, স্কুলছাত্রীর ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড হয়েছে। গ্রেফতার শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

চুয়াডাঙ্গা কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, তুহিন সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক হলেও ছোটদের ক্লাসে তিনি গণিত নিতেন।

 

এমন একটা জঘন্য কাজ করবে আমরা কখনো ভাবিনি। প্রতিষ্ঠানটির একটা সুনাম তৈরি হয়েছিল। আমরা চাই দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি হোক।

জনপ্রিয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

চুয়াডাঙ্গায় ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশ : ০৮:১৪:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৬ জুন ২০২৩

চুয়াডাঙ্গায় স্কুলছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে ওবাইদুল ইসলাম তুহিন (৩৫) নামে এক শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

 

রোববার (২৫ জুন) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তুহিন জেলার জীবননগর উপজেলার শাহপুর গ্রামের মৃত নুর মোহাম্মদ মন্ডলের ছেলে ও চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক।

 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা পৌর শহরের কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনের কাছে প্রাইভেট পড়তো একই স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। প্রতিদিনের মতো রোববার সকাল পৌনে ১০টায় ওই ছাত্রী প্রাইভেট পড়তে যায় সানফ্লাওয়ার স্কুলে।

 

সেখানে প্রাইভেট পড়ার এক পর্যায়ে অন্য শিক্ষার্থীদের ছুটি দিলেও ওই ছাত্রীকে আরও অংক করতে বলেন শিক্ষক তুহিন। এক পর্যায়ে খাতা দেখার সময় ওই ছাত্রীর স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেন শিক্ষক।

 

এ সময় মেয়েটি কান্নাকাটি করতে থাকে। আবারও তাকে ধরতে চাইলে সে দৌড়ে পালানোর সময় তার মামা দেখে ফেলেন। ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা-মা চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ অভিযুক্ত শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনকে গ্রেফতার করে।

 

চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহাব্বুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, স্কুলছাত্রীর ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড হয়েছে। গ্রেফতার শিক্ষক ওবাইদুল ইসলাম তুহিনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

 

চুয়াডাঙ্গা কালেক্টরেট স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. মাসুদুজ্জামান জাগো নিউজকে বলেন, তুহিন সমাজ বিজ্ঞানের শিক্ষক হলেও ছোটদের ক্লাসে তিনি গণিত নিতেন।

 

এমন একটা জঘন্য কাজ করবে আমরা কখনো ভাবিনি। প্রতিষ্ঠানটির একটা সুনাম তৈরি হয়েছিল। আমরা চাই দোষীর সর্বোচ্চ শাস্তি হোক।