চুয়াডাঙ্গা ০৬:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ চুয়াডাঙ্গায় আন্ত‌জেলা অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় ৬ সদস্য  আটক; চেতনা নাশক ঔষধ উদ্ধার দামুড়হুদার ডুগডুগি বাজারে বিট পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার ফয়জুর রহমান-অপরাধ দমনে পুলিশ কে তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন স্ত্রী‌কে সম্ভ্রমহা‌নি করার অপরা‌ধে ক‌বিরাজ‌কে জবাই ক‌রে হত্যা দামুড়হুদায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমপি টগর-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় জনগণের কথা চিন্তা করে দামুড়হুদায় মাশরুম চাষ সম্প্রসারণে মাঠ দিবসে সাবেক মহাপরিচালক ড. হামিদুর রহমান -চুয়াডাঙ্গার মাটি কৃষির ঘাটি দামুড়হুদায় জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভা দামুড়হুদার আটকবর মোড়ে পূর্ববিরোধের জেরে ২জনকে কুপিয়ে, মারপিটে জখম করার অভিযোগ  দামুড়হুদার দুটি রাস্তার উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন কালে এমপি টগর -আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়নমূখী সরকার দামুড়হুদায় বোরো ধান সংগ্রহের লটারী অনুষ্ঠিত 

চার জেলায় নগদ টাকার ব্যবহার কমাতে চালু হচ্ছে বাংলা কিউআর

ফাইল ফটো

নগদ টাকার ব্যবহার কমাতে সব ধরনের লেনদেন কিউআর কোডভিত্তিক ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনা চালু করতে চায় বাংলাদেশ ব্যাংক। এজন্য আলাদা বাংলা কিউআর কোড চালু করা হয়েছে। আগামী বছর থেকে কিউআর কোডভিত্তিক সব লেনদেন হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের তৈরি অ্যাপ বাংলা কিউআর কোডের মাধ্যমে।

 

তাই আগামী ২০ মার্চ থেকে আরও চার জেলায় চালু হতে যাচ্ছে মোবাইলভিত্তিক এ ব্যাংক সেবা। জেলাগুলো হলো, গোপালগঞ্জ, রংপুর, গাজীপুর ও নাটোর। এ মুহূর্তে রাজধানীর গুলশান ও মতিঝিলে এ সেবা চালু রয়েছে। ধীরে ধীরে সারা দেশেই ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা যায়।

 

গতকাল মোবাইল সার্ভিস প্রভাইডারদের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের এ সংক্রান্ত একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক সূত্র জানায়, আগামী ২০ তারিখ এই চার জেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলা কিউআর অ্যাপের উদ্বোধন করবেন গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার।

 

বাংলা কিউআর (কুইক রেসপন্স) হলো দেশের সব ব্যাংক ও মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের (এমএফএস) অ্যাপভিত্তিক লেনদেন নিষ্পত্তির একটি কমন প্ল্যাটফর্ম। এই প্ল্যাটফর্মে যুক্ত যেকোনো ব্যাংক বা এমএফএসের গ্রাহক যেকোনো অন্য কিউআর থেকে পরিশোধ করতে পারেন। লেনদেনে স্বচ্ছতা বাড়ানো, ঝুঁকিমুক্ত, কম খরচ ও দ্রুত করতে ক্যাশলেস সোসাইটি গঠনের লক্ষ্য নিয়ে এমন ব্যবস্থা প্রবর্তন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন এ ব্যবস্থায় লেনদেনে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

 

গত ৮ ফেব্রুয়ারি এক নির্দেশনার মাধ্যমে আগামী ৩০ জুনের পর বাংলা কিউআর ছাড়া আর কোনো কিউআর কোডভিত্তিক লেনদেন ব্যবস্থা না রাখার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, কোনো ব্যাংক, এমএফএসের নিজস্ব মালিকানার কিউআর থাকলে আবশ্যিকভাবে ৩০ জুনের মধ্যে তা বাংলা কিউআরে প্রতিস্থাপন করতে হবে।

 

একই সঙ্গে বাংলা কিউআর ব্যবহারে দৈনিক সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা লেনদেনের যে সীমা ছিল তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। এখন থেকে ব্যাংক বা এমএফএস নিজস্ব ঝুঁকি বিবেচনায় মার্চেন্ট পেমেন্টের ক্ষেত্রে বাংলা কিউআর কোডভিত্তিক একক লেনদেনের সীমা, দৈনিক লেনদেনের সীমা ও সংখ্যা নির্ধারণ করতে পারবে। তবে এ মাধ্যমে সন্দেহজনক বা বৃহৎ অঙ্কের লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক বা প্রতিষ্ঠান থেকে যথাযথভাবে যাচাই করতে হবে।

 

এ ধরনের ব্যবস্থা প্রবর্তনের উদ্যোগ নেওয়া হয় ২০২০ সালের শেষ দিকে। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে বাংলা কিউআরের ব্যবহারবিধি বিষয়ে নীতিমালা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ক্যাশলেস প্রচারণার অংশ হিসেবে গত ১৮ জানুয়ারি মতিঝিল এলাকার ভাসমান ১ হাজার ২০০ দোকানে বাংলা কিউআরের লেনদেন ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়। এসব দোকানদারের জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে একটি করে অ্যাকাউন্ট খুলে দিয়েছে ব্যাংক বা এমএফএস।

 

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, ক্যাশলেস স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে বাংলা কিউআর কোডভিত্তিক লেনদেন ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়েছে। ফলে একটি দোকানে এক ব্যাংকের কিউআর থাকলেই যেকোনো ব্যাংক এমএফএসের গ্রাহক পরিশোধ করতে পারবেন। এতে মার্চেন্টের ঝামেলা কম।

প্রসঙ্গঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

চার জেলায় নগদ টাকার ব্যবহার কমাতে চালু হচ্ছে বাংলা কিউআর

প্রকাশ : ০৭:৪৪:১৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মার্চ ২০২৩

নগদ টাকার ব্যবহার কমাতে সব ধরনের লেনদেন কিউআর কোডভিত্তিক ব্যাংকিং ব্যবস্থাপনা চালু করতে চায় বাংলাদেশ ব্যাংক। এজন্য আলাদা বাংলা কিউআর কোড চালু করা হয়েছে। আগামী বছর থেকে কিউআর কোডভিত্তিক সব লেনদেন হবে বাংলাদেশ ব্যাংকের তৈরি অ্যাপ বাংলা কিউআর কোডের মাধ্যমে।

 

তাই আগামী ২০ মার্চ থেকে আরও চার জেলায় চালু হতে যাচ্ছে মোবাইলভিত্তিক এ ব্যাংক সেবা। জেলাগুলো হলো, গোপালগঞ্জ, রংপুর, গাজীপুর ও নাটোর। এ মুহূর্তে রাজধানীর গুলশান ও মতিঝিলে এ সেবা চালু রয়েছে। ধীরে ধীরে সারা দেশেই ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানা যায়।

 

গতকাল মোবাইল সার্ভিস প্রভাইডারদের সঙ্গে বাংলাদেশ ব্যাংকের এ সংক্রান্ত একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক সূত্র জানায়, আগামী ২০ তারিখ এই চার জেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলা কিউআর অ্যাপের উদ্বোধন করবেন গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদার।

 

বাংলা কিউআর (কুইক রেসপন্স) হলো দেশের সব ব্যাংক ও মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের (এমএফএস) অ্যাপভিত্তিক লেনদেন নিষ্পত্তির একটি কমন প্ল্যাটফর্ম। এই প্ল্যাটফর্মে যুক্ত যেকোনো ব্যাংক বা এমএফএসের গ্রাহক যেকোনো অন্য কিউআর থেকে পরিশোধ করতে পারেন। লেনদেনে স্বচ্ছতা বাড়ানো, ঝুঁকিমুক্ত, কম খরচ ও দ্রুত করতে ক্যাশলেস সোসাইটি গঠনের লক্ষ্য নিয়ে এমন ব্যবস্থা প্রবর্তন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এখন এ ব্যবস্থায় লেনদেনে উৎসাহিত করা হচ্ছে।

 

গত ৮ ফেব্রুয়ারি এক নির্দেশনার মাধ্যমে আগামী ৩০ জুনের পর বাংলা কিউআর ছাড়া আর কোনো কিউআর কোডভিত্তিক লেনদেন ব্যবস্থা না রাখার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, কোনো ব্যাংক, এমএফএসের নিজস্ব মালিকানার কিউআর থাকলে আবশ্যিকভাবে ৩০ জুনের মধ্যে তা বাংলা কিউআরে প্রতিস্থাপন করতে হবে।

 

একই সঙ্গে বাংলা কিউআর ব্যবহারে দৈনিক সর্বোচ্চ ২০ হাজার টাকা লেনদেনের যে সীমা ছিল তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। এখন থেকে ব্যাংক বা এমএফএস নিজস্ব ঝুঁকি বিবেচনায় মার্চেন্ট পেমেন্টের ক্ষেত্রে বাংলা কিউআর কোডভিত্তিক একক লেনদেনের সীমা, দৈনিক লেনদেনের সীমা ও সংখ্যা নির্ধারণ করতে পারবে। তবে এ মাধ্যমে সন্দেহজনক বা বৃহৎ অঙ্কের লেনদেনের ক্ষেত্রে ব্যাংক বা প্রতিষ্ঠান থেকে যথাযথভাবে যাচাই করতে হবে।

 

এ ধরনের ব্যবস্থা প্রবর্তনের উদ্যোগ নেওয়া হয় ২০২০ সালের শেষ দিকে। ২০২১ সালের জানুয়ারিতে বাংলা কিউআরের ব্যবহারবিধি বিষয়ে নীতিমালা জারি করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ক্যাশলেস প্রচারণার অংশ হিসেবে গত ১৮ জানুয়ারি মতিঝিল এলাকার ভাসমান ১ হাজার ২০০ দোকানে বাংলা কিউআরের লেনদেন ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়। এসব দোকানদারের জাতীয় পরিচয়পত্রের বিপরীতে একটি করে অ্যাকাউন্ট খুলে দিয়েছে ব্যাংক বা এমএফএস।

 

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. মেজবাউল হক বলেন, ক্যাশলেস স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে বাংলা কিউআর কোডভিত্তিক লেনদেন ব্যবস্থা প্রবর্তন করা হয়েছে। ফলে একটি দোকানে এক ব্যাংকের কিউআর থাকলেই যেকোনো ব্যাংক এমএফএসের গ্রাহক পরিশোধ করতে পারবেন। এতে মার্চেন্টের ঝামেলা কম।