চুয়াডাঙ্গা ০৯:২৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ১২ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সর্বশেষ সংবাদঃ
চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ চুয়াডাঙ্গায় আন্ত‌জেলা অজ্ঞান পার্টির সক্রিয় ৬ সদস্য  আটক; চেতনা নাশক ঔষধ উদ্ধার দামুড়হুদার ডুগডুগি বাজারে বিট পুলিশিং সভায় পুলিশ সুপার ফয়জুর রহমান-অপরাধ দমনে পুলিশ কে তথ্য দিয়ে সহায়তা করুন স্ত্রী‌কে সম্ভ্রমহা‌নি করার অপরা‌ধে ক‌বিরাজ‌কে জবাই ক‌রে হত্যা দামুড়হুদায় নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমপি টগর-প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় জনগণের কথা চিন্তা করে দামুড়হুদায় মাশরুম চাষ সম্প্রসারণে মাঠ দিবসে সাবেক মহাপরিচালক ড. হামিদুর রহমান -চুয়াডাঙ্গার মাটি কৃষির ঘাটি দামুড়হুদায় জাতীয় ভিটামিন-এ প্লাস ক্যাম্পেইন অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভা দামুড়হুদার আটকবর মোড়ে পূর্ববিরোধের জেরে ২জনকে কুপিয়ে, মারপিটে জখম করার অভিযোগ  দামুড়হুদার দুটি রাস্তার উন্নয়নমূলক কাজের উদ্বোধন কালে এমপি টগর -আওয়ামীলীগ সরকার উন্নয়নমূখী সরকার দামুড়হুদায় বোরো ধান সংগ্রহের লটারী অনুষ্ঠিত 

দামুড়হুদার কৃতি সন্তান অধ্যাপক আসাবুল হক রাবির গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণিত বিভাগের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন দামুড়হুদার কৃতি সন্তান অধ্যাপক ড. আসাবুল হক। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিভাগের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নাসিমা আখতারের কাছ থেকে আগামী ৩ বছরের জন্য তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ সময় বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান।

তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা সরকারি পাইলট হাই স্কুল থেকে ১৯৮২ সালে এসএসসি পাশ করা অধ্যাপক আসাবুল হক উচ্চ মাধ্যমিকে পড়েন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে। পরে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগ থেকে ১৯৮৮ সালে স্নাতক ও ১৯৮৯ সালে স্নাতকোত্তর পাশ করেন। ১৯৯৭ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া অধ্যাপক আসাবুল হক এর আগে ৩ বছর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের প্রভাষক ছিলেন।
এরপর তিনি ২০০২ সালে জাপানের তোয়োহাশি ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি (টিইউটি) থেকে পিএইচডি ডিগ্রি, ২০০৮ সালে একই ইউনিভার্সিটি থেকে পোস্ট-ডক্টরেট এবং ২০০৯ সালে হামবোল্ট রিসার্চ ফেলোশিপ নিয়ে পোস্ট-ডক্টরেট করেছেন জার্মানীর টেকনোলজি ইউনিভার্সিটি অব ব্রোঞ্চওয়েগ থেকে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে অধ্যাপক আসাবুল হকের লেখা প্রায় ৬৫টি গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। ওয়াটার ওয়েভস, সেডিমেন্ট ট্রান্সপোর্ট, ক্লাইমেট চেন্জ ও জিওফিজিক্যাল ফ্লুইড ডায়নামিকস অ্যান্ড বায়ো ম্যাথমেটিকস প্রভৃতি তাঁর গবেষণার বিষয়। তাঁর সুপারবিশনে ইতিমধ্যে ৩ জন শিক্ষার্থী পিএইচডি, ২ জন এম ফিল এবং বিশের অধিক গ্র্যাজুয়েট রিচার্স থিসিস/প্রজেক্ট সম্পন্ন করেছেন।

অধ্যাপক আসাবুল হক বিভিন্ন দেশের আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে যোগ দেয়ার পাশাপাশি সমসাময়িক ইস্যু ভিত্তিক একশোর অধিক লেখা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করেছেন।

ইতিপূর্বে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের প্রাধ্যক্ষ, বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের নির্বাচিত সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের বর্তমান স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যসহ আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের দায়িত্ব পালন করছেন।

দায়িত্ব গ্রহণ করে তিনি বলেন, সভাপতি একটা রুটিন দায়িত্ব। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী সভাপতির উপর অর্পিত দায়িত্ব সৎ ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করার ইচ্ছা পোষণ করছি। শিক্ষার্থী, শিক্ষকমণ্ডলী ও সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা নিয়ে শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নয়ন এবং বর্তমান সফলতার ধারা উত্তরোত্তর এগিয়ে নিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করব।

দায়িত্ব গ্রহণকালে বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সুব্রত মজুমদার, অধ্যাপক জুলফিকার আলী, অধ্যাপক লুৎফর রহমান, অধ্যাপক হোসনে আরা জেসমিন, অধ্যাপক মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, অধ্যাপক মো. আসাদুজ্জামান, অধ্যাপক কাজী সেলিনা সুলতানা, অধ্যাপক শিউলি শামিম শান্তা, অধ্যাপক মোহাম্মদ হারুনর রশিদ, অধ্যাপক শাহাদৎ হোসেন, অধ্যাপক জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।##

জনপ্রিয় সংবাদ

চুয়াডাঙ্গায় উন্নত ব্যবস্থাপনায় মাছ চাষের উপর প্রশিক্ষণ

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

দামুড়হুদার কৃতি সন্তান অধ্যাপক আসাবুল হক রাবির গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান

প্রকাশ : ০৭:৫৬:৪৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) গণিত বিভাগের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন দামুড়হুদার কৃতি সন্তান অধ্যাপক ড. আসাবুল হক। বৃহস্পতিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) বিভাগের সদ্য বিদায়ী চেয়ারম্যান ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. নাসিমা আখতারের কাছ থেকে আগামী ৩ বছরের জন্য তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেন। এ সময় বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান।

তিনি চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা সরকারি পাইলট হাই স্কুল থেকে ১৯৮২ সালে এসএসসি পাশ করা অধ্যাপক আসাবুল হক উচ্চ মাধ্যমিকে পড়েন চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজে। পরে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগ থেকে ১৯৮৮ সালে স্নাতক ও ১৯৮৯ সালে স্নাতকোত্তর পাশ করেন। ১৯৯৭ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগ পাওয়া অধ্যাপক আসাবুল হক এর আগে ৩ বছর শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের প্রভাষক ছিলেন।
এরপর তিনি ২০০২ সালে জাপানের তোয়োহাশি ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি (টিইউটি) থেকে পিএইচডি ডিগ্রি, ২০০৮ সালে একই ইউনিভার্সিটি থেকে পোস্ট-ডক্টরেট এবং ২০০৯ সালে হামবোল্ট রিসার্চ ফেলোশিপ নিয়ে পোস্ট-ডক্টরেট করেছেন জার্মানীর টেকনোলজি ইউনিভার্সিটি অব ব্রোঞ্চওয়েগ থেকে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে অধ্যাপক আসাবুল হকের লেখা প্রায় ৬৫টি গবেষণা নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। ওয়াটার ওয়েভস, সেডিমেন্ট ট্রান্সপোর্ট, ক্লাইমেট চেন্জ ও জিওফিজিক্যাল ফ্লুইড ডায়নামিকস অ্যান্ড বায়ো ম্যাথমেটিকস প্রভৃতি তাঁর গবেষণার বিষয়। তাঁর সুপারবিশনে ইতিমধ্যে ৩ জন শিক্ষার্থী পিএইচডি, ২ জন এম ফিল এবং বিশের অধিক গ্র্যাজুয়েট রিচার্স থিসিস/প্রজেক্ট সম্পন্ন করেছেন।

অধ্যাপক আসাবুল হক বিভিন্ন দেশের আন্তর্জাতিক কনফারেন্সে যোগ দেয়ার পাশাপাশি সমসাময়িক ইস্যু ভিত্তিক একশোর অধিক লেখা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করেছেন।

ইতিপূর্বে তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের প্রাধ্যক্ষ, বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটের নির্বাচিত সদস্য, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের বর্তমান স্টিয়ারিং কমিটির সদস্যসহ আরও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের দায়িত্ব পালন করছেন।

দায়িত্ব গ্রহণ করে তিনি বলেন, সভাপতি একটা রুটিন দায়িত্ব। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম অনুযায়ী সভাপতির উপর অর্পিত দায়িত্ব সৎ ও নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করার ইচ্ছা পোষণ করছি। শিক্ষার্থী, শিক্ষকমণ্ডলী ও সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা নিয়ে শিক্ষা ও গবেষণার মান উন্নয়ন এবং বর্তমান সফলতার ধারা উত্তরোত্তর এগিয়ে নিতে সর্বাত্মক চেষ্টা করব।

দায়িত্ব গ্রহণকালে বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক সুব্রত মজুমদার, অধ্যাপক জুলফিকার আলী, অধ্যাপক লুৎফর রহমান, অধ্যাপক হোসনে আরা জেসমিন, অধ্যাপক মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন, অধ্যাপক মো. আসাদুজ্জামান, অধ্যাপক কাজী সেলিনা সুলতানা, অধ্যাপক শিউলি শামিম শান্তা, অধ্যাপক মোহাম্মদ হারুনর রশিদ, অধ্যাপক শাহাদৎ হোসেন, অধ্যাপক জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।##